• বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারি ২০২১, ৭ মাঘ ১৪২৭
অবিস্মরণীয় জয় বাংলাদেশের

ম্যাচ জয়ের পর বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা

ইন্টারনেট

ক্রিকেট

অবিস্মরণীয় জয় বাংলাদেশের

  • স্পোর্টস রিপোর্টার
  • প্রকাশিত ১০ জুন ২০১৮

ওমেন্স টি-টোয়েন্টি এশিয়া কাপের শ্বাসরুদ্ধকর ফাইনাল ম্যাচে তিন উইকেটে জয় পেল বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল। মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরের কিনাররা একাডেমি ওভালের মাঠে ম্যাচের শুরুতে টসে জিতে ভারতকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় বাংলাদেশ। ২০ ওভার শেষে ভারতের সংগ্রহ দাঁড়ায় ১১২ রান। বিরতির পরে ১১৩ রানের টার্গেটে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩ উইকেট হাতে রেখেই জয় পায় বাংলাদেশ। ম্যাচ সেরা হয়েছেন বাংলাদেশের রুমানা আহমেদ।

বাংলাদেশের পক্ষে ওপেনার ব্যাটসম্যান হিসেবে নামেন শামিমা সুলতানা এবং আয়েশা রহমান । বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইনে মূলত অঘাত হানেন পুনম যাদব। বাংলাদেশের প্রথম চারজন ব্যাসম্যানই তার শিকার হন। তার বোলিং তোপের মুখে পড়ে ১৯ বল খেলে ব্যক্তিগত ১৬ রান করে পুনম যাদবের বলে মিতালি রাজের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন শামিমা। এরপরই ২৩ বলে ১৭ রান করে ঝুলন গোস্বামির তালুবন্দি হন আয়েশা। পুনমের বলেই সাজঘরে ফেরেন ফারজানা হক। তার সংগ্রহ ছিল ১৭ বলে ১১ রান। ২৪ বলে ২৭ রান করে পুনমের বলেই দিপ্তী শর্মার হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন নিগার সুলতানাও। ২২ বলে ২৩ রান করে রান আউট হন রুমানা আহমেদ। সানজিদা ইসলাম করেন ৭ বলে ৫ রান। জাহানারা ১ বলে ২ রান এবং সালমা খাতুন শূণ্য বলে শূণ্য রান করে অপরাজিত থাকেন।

খেলার শুরুতে টসে হেরে ভারতের পক্ষে ওপেনার হিসেবে নামেন মিতালি রাজ এবং স্মৃতি মান্ধানা। মাত্র ১৮ বল খেলে ব্যক্তিগত ১১ রান করে খাদিজা তুল কুবরার বলে ফারজানা হকের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন মিতালি। এরপরই ১২ বলে ৭ রান করে রান আউটের শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন স্মৃতি। দিপ্তী শর্মাকে ক্লিন বোল্ড করেন জাহানারা আলম। দিপ্তীর সংগ্রহ ছিল ১১ বলে ৪ রান। ভেদা কৃষ্ণমুর্তিও বোল্ড আউটের শিকার হন সালমা খাতুনের বলে। তার সংগ্রহ ১০ বলে ১১ রান।

রুমানা আহমেদের বলে তানিয়া ভাটিয়াকে স্ট্যাম্পিংয়ের ফাঁদে ফেলেন শামিমা সুলতানা। ৬ বলে ৩ রান করেন তিনি। রুমানা আহমেদের বলে শামিমা সুলতানার হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে যান শিখা পান্ডে। ৩ বলে তার সঙগ্রহ ১ রান। ১২ বলে ১০ রান করে রান আউট হন ঝুলান গোস্বামী। ২ বলে ১ রান করে অপরাজিত থাকেন একতা বিশট। ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ রান করেন হারমানপ্রিত কর। ৪২ বলে ৫৬ রান করেন তিনি। খাদিজা তুল কুবরার বলে জাহানারা আলমের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads