• মঙ্গলবার, ২০ নভেম্বর ২০১৮, ৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads

খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে সামনে রেখে বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির সভায় বক্তব্য দেন নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসেন চৌধুরী

ছবি : ফোকাস বাংলা

নির্বাচন

‘সিটি নির্বাচনে সেনা মোতায়েন নয়’

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ২৯ এপ্রিল ২০১৮

গাজীপুর ও খুলনা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে সেনা সদস্য মোতায়েন করা হচ্ছে না। নির্বাচনী এলাকায় আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্থিতিশীল রাখতে পুলিশ, বিজিবি, র‌্যাবসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অতিরিক্ত সদস্য মোতায়েন করা হবে।
রোববার দুপুরে খুলনা খুলনা সার্কিট হাউসে সিটি নির্বাচনের বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির সভা শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের এ কথা জানান নির্বাচন কমিশনার শাহাদাত হোসনে চৌধুরী।

তিনি বলেন, ‘সিটি নির্বাচনে আমরা সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে যাচ্ছি না। প্রতিটি কেন্দ্রে আনসার ও পুলিশ মিলে ২২ থেকে ২৪ জন করে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য থাকবেন। প্রতিটি কেন্দ্রে থাকবে কমপক্ষে ১২টি অস্ত্র।আমি মনে করি এটা যথেষ্ট। এরপরও বিজিবির প্রায় ১৬টি প্লাটুন, পুলিশের যথেষ্ট স্ট্রাইকিং ফোর্স, মোবাইল টিম, র‍্যাব এবং বিজিবির প্রতিটি টিমের সঙ্গে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট থাকবেন।’

নির্বাচন কমিশনার আরো বলেন, নির্বাচনে লেবেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করার সব ধরনের চেষ্টা করা হচ্ছে। প্রার্থীদের পাশাপাশি ভোটারদের জন্য লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করা হচ্ছে। যাতে তারা পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন।
তিনি আরো বলেন, শুধু ভোটের আগে নয়, ভোটের পরেও যেন এটি নিশ্চিত থাকে, সে ব্যবস্থা করা হচ্ছে।
ইভিএমের ব্যাপারে শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, বিভিন্ন সময় ইভিএম (ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন) ব্যবহৃত হয়েছে। সেখানে কিছু ভুলত্রুটি ছিল। সেটা সংশোধনের জন্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের নিয়ে ১৯ জনের একটি কমিটি করা হয়েছে। ওই কমিটি ইভিএমকে সহজতর করার পরিকল্পনা করছে।
খুলনা সিটি করপোরেশনে আমরা চেষ্টা করছি একটি ওয়ার্ডে বা সীমিতসংখ্যক কেন্দ্রে এটাকে ব্যবহার করার। কিছু কিছু কেন্দ্রে সিসি ক্যামেরা ব্যবহারের পরিকল্পনাও রয়েছে আমাদের।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads