• সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
২০ শতাংশ দর হারাল লিরা

২৪ ঘণ্টায় প্রায় ২০ শতাংশ দর হারিয়েছে তুর্কি মুদ্রা লিরা

সংগৃহীত ছবি

ইউরোপ

তুরস্কের ইস্পাতে যুক্তরাষ্ট্রের দ্বিগুণ শুল্ক

২০ শতাংশ দর হারাল লিরা

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ১২ আগস্ট ২০১৮

তুরস্কের ইস্পাত ও অ্যালুমিনিয়ামের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের শুল্ক দ্বিগুণ করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ফলে গত শুক্রবার মাত্র ২৪ ঘণ্টায় প্রায় ২০ শতাংশ দর হারিয়েছে তুর্কি মুদ্রা লিরা। গত বছর লিরার দর কমেছে ৪০ শতাংশের বেশি। বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

মুদ্রার এ দরপতনের জন্য বিদেশি শক্তিগুলোর ‘প্রচারণাকে’ দায়ী করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। শুল্ক আরোপের প্রতিক্রিয়ায় পাল্টা পদক্ষেপ নেওয়ার হুশিয়ারিও দিয়েছে আঙ্কারা।

বিবৃতিতে তুরস্কের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, এ ধরনের নিষেধাজ্ঞা ও চাপে কেবল সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত হয়, যুক্তরাষ্ট্রের তা বোঝা উচিত।

অন্যদিকে এর আগে টুইট বার্তায় ট্রাম্প বলেন, তুরস্কের মুদ্রা ‘আমাদের অত্যন্ত শক্তিশালী ডলারের’ বিপরীতে দুর্বল। এ ছাড়া এ মুহূর্তে যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের সম্পর্ক ভালো নয়।

মুদ্রার এ দরপতনের জন্য বিদেশি শক্তিগুলোর ‘প্রচারণাকে’ দায়ী করেছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান। শুল্ক আরোপের প্রতিক্রিয়ায় পাল্টা পদক্ষেপ নেওয়ারও হুশিয়ারি দিয়েছে আঙ্কারা।

যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্ক এই দুই ন্যাটো সদস্যের মধ্যে নানা বিষয়ে মতপার্থক্য রয়েছে। সম্প্রতি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তুরস্কে সন্ত্রাস ও গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে যুক্তরাষ্ট্রের ধর্মযাজককে আটকে রাখায় কয়েকজন শীর্ষস্থানীয় তুর্কি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেন। টেলিভিশনে দেওয়া এক ভাষণে গত শুক্রবার এটিকে ‘অর্থনৈতিক যুদ্ধ’ ঘোষণা করে এরদোগান নাগরিকদের বলেন, লিরার সঙ্গে বিদেশি মুদ্রা ও সোনা বিনিময় করতে। যুক্তরাষ্ট্র ও তুরস্কের মধ্যকার বিরোধে আন্তর্জাতিক মুদ্রা বাজারে ইউরোর মান ১৩ মাসের মধ্যে সর্বনিম্নে পৌঁছে। পাশাপাশি ডলারকে এক বছরের সর্বোচ্চ দরে ঠেলে দেয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads