• রবিবার, ২৭ মে ২০১৮, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads

রক্ত দেওয়া শরীরের জন্য উপকারী

সংগৃহীত ছবি

স্বাস্থ্য

রক্ত দেওয়া ভালো

  • ফয়জুন্নেসা মণি
  • প্রকাশিত ১৪ মে ২০১৮

রক্ত একজন মানুষের কতটা প্রয়োজন তা সে-ই বুঝতে পারে যাকে রক্তের সন্ধানে দ্বারে দ্বারে ঘুরতে হয়। বর্তমানে বিভিন্ন ব্লাড ব্যাংকের কল্যাণে রক্ত পাওয়া তুলনামূলকভাবে সহজ হয়েছে। ফেসবুক ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও এ ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রাখছে। তার পরেও প্রয়োজনের সময় রক্ত খুঁজে পাওয়া যায় না। এই বাস্তবতা কী যে কঠিন- ভুক্তভোগী মাত্রই জানেন। স্বেচ্ছায় রক্তদানে মানুষকে উদ্বুদ্ধ করা ছাড়া রক্তের সঙ্কট দূর করার আর কোনো পথ নেই। সাধারণ মানুষকে বোঝাতে হবে, রক্ত দিলে কোনো ক্ষতি হয় না বরং শরীরের জন্য তা অনেক উপকারী।

রক্ত সম্পর্কে কিছু তথ্য : রক্ত তৈরি করা যায় না, এর মানে কারো যদি রক্ত লাগে তবে শুধু একজন ইচ্ছুক ব্যক্তিই পারেন তাকে রক্ত দিয়ে সাহায্য করতে। গবেষণায় দেখা গেছে, জীবিত মানুষদের মধ্যে ২৫% লোকের জীবনে কোনো না কোনো সময় রক্তের প্রয়োজন হয়। একজন মানুষের দেহে রক্তের পরিমাণ তার মোট ওজনের ১৩ ভাগের এক ভাগ। মানবদেহে অক্সিজেন সরবরাহকারী লোহিত রক্তকণিকার পরিমাণ ২৫০০ কোটি এবং এরা ৪ মাস বাঁচে। রোগ প্রতিরোধকারী শ্বেত রক্তকণিকার সংখ্যা ২৫০ কোটি এবং এরা মাত্র ১২ ঘণ্টা বাঁচে। এক ব্যাগ রক্ত দিতে সময় লাগে ৪৫ থেকে ৬০ মিনিট। রক্তদানের পর যেটুকু রক্ত আপনি দিলেন তা পুনরায় শরীরে তৈরি হতে সময় নেয় মাত্র ২৪ থেকে ৪৮ ঘণ্টা।

রক্ত দেওয়া ভালো : রক্ত দেওয়ার মধ্যে ভয়ের কিছু নেই। শরীরের কোনো ক্ষতির আশঙ্কা নেই। উপরন্তু রক্ত দিলে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে থাকে। প্রত্যেক সুস্থ ব্যক্তি প্রতি চার মাস অন্তর রক্ত দিতে পারেন। একজন মানুষের দেহের রক্তকণিকা প্রতি ২১ দিন অন্তর নষ্ট হয় এবং নতুন করে তৈরি হয়।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads