• মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০১৯, ৪ আষাঢ় ১৪২৫
ads
খালেদার ১১ মামলার শুনানি পেছাল

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া

সংরক্ষিত ছবি

আইন-আদালত

খালেদার ১১ মামলার শুনানি পেছাল

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৬ আগস্ট ২০১৮

রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার ১১ মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার হাজিরা আগামী ৯ সেপ্টেম্বর ধার্য করেছেন আদালত। গতকাল রোববার রাজধানীর বকশীবাজার আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকা মহানগর দায়রা জজ ইমরুল কায়েস এ দিন ধার্য করেন। এর আগে খালেদা জিয়ার পক্ষে সময় চেয়ে আবেদন করেন আইনজীবীরা।

খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা বলেন, রাষ্ট্রদ্রোহ ও নাশকতার এ ১১ মামলার কার্যক্রম হাইকোর্টের আদেশে স্থগিত আছে। খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন মাসুদ আহমেদ তালুকদার।

রাজধানীর দারুস সালাম থানার নাশকতার আট মামলা, রাষ্ট্রদ্রোহের একটি ও যাত্রাবাড়ী থানার দুই মামলা রয়েছে। গতকাল এ ১১ মামলার মধ্যে ১০ মামলার অভিযোগ গঠন শুনানির দিন এবং যাত্রাবাড়ী থানার অপর একটি মামলায় অভিযোগপত্র গ্রহণের দিন ধার্য ছিল।

এ মামলাগুলো পুরান ঢাকার নিম্ন আদালতে বিচারাধীন ছিল। গত ৮ জানুয়ারি আইন মন্ত্রণালয়ের জারি করা প্রজ্ঞাপনে এই ১১ মামলাসহ খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে করা ১৪টি মামলা বকশীবাজার আদালতে পাঠানো হয়।

নড়াইলে জামিন নামঞ্জুর

আমাদের নড়াইল প্রতিনিধি জানান, স্বাধীনতাযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে বিতর্কিত বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে নড়াইলের আদালতে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার নামে দায়ের করা মানহানি মামলায় জামিন আবারো নামঞ্জুর করেছেন আদালত। গতকাল রোববার দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ এ আদেশ দেন। গত ২ আগস্ট খালেদা জিয়ার পক্ষে বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আইনজীবী মাসুদ আহমেদ তালুকদার জামিন আবেদন জানালে শুনানি শেষে আদেশের দিন ৫ আগস্ট  ধার্য করেন আদালত।

২০১৫ সালের ২৪ ডিসেম্বর নড়াইল জেলার নড়াগাতি থানার চাপাইল গ্রামের রায়হান ফারুকী ইমাম বাদী হয়ে বিএনপি প্রধানের নামে নড়াইল সদর আদালতে মানহানির মামলা করেন।  ওই বছরের ২১ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকায় মুক্তিযোদ্ধাদের সমাবেশে খালেদা জিয়া তার বক্তব্যে স্বাধীনতাযুদ্ধে ৩০ লাখ শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক আছে বলে মন্তব্য করেন। এ ছাড়া একই সমাবেশে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাম উল্লেখ না করে তাকে (বঙ্গবন্ধু) ইঙ্গিত করে খালেদা জিয়া বলেন, তিনি স্বাধীনতা চাননি। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads