• বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ২ কার্তিক ১৪২৬
ads
বাঙালির বিষাদের মাস

বাঙালির জাতীয় জীবনে আগস্ট মাস গভীর শোকের মাস

ছবি: সংগৃহীত

জাতীয়

শোকাবহ আগস্ট

বাঙালির বিষাদের মাস

  • সোহেল অটল
  • প্রকাশিত ০১ আগস্ট ২০১৮

হাজার বছরের শৃঙ্খল ভেঙে বাঙালি জাতিকে স্বাধীনতা এনে দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। পদ্মা-মেঘনা-যমুনা এবং বঙ্গোপসাগরের কূলে যে জনপদের বাস, সেই জনপদের সংস্কৃতি অনুধাবন ও আত্মস্থ করেছিলেন বঙ্গবন্ধু। তার রাজনৈতিক চর্চায় তিনি এই জনপদের মানুষের আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তিকে জীবন-দর্শন হিসেবে গ্রহণ করেছিলেন। হয়েছিলেন ইতিহাসের মহানায়ক।

বাঙালি জাতির পিতা এই জনপদের শৃঙ্খলিত মানুষের মুক্তির জন্য বিলিয়েছেন নিজেকে। দীর্ঘ সংগ্রামের মাধ্যমে বাঙালিকে করে গেছেন স্বাধীন। কিন্তু স্বাধীনতাপরবর্তী সময়ে বিশেষ একটি মহলের কুচক্রে বিশৃঙ্খল বাঙালি জাতিকে পুনর্গঠনের সময় পাননি। শিকার হন অকৃতজ্ঞ শকুনের নির্মমতার। পৃথিবীর ইতিহাসে এমন ঘটনা বিরল।

আমাদের আগস্ট তাই দুর্বিষহ। গভীর শোকের মাস বাঙালির জাতীয় জীবনে। এ জাতির বিষাদের মাস আগস্ট। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বাঙালির প্রিয় নেতা, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহধর্মিণীসহ পরিবারের প্রায় সব সদস্য ঘাতক চক্রের আক্রমণে নিহত হন।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্য দিয়ে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাশ্রিত রাজনৈতিক প্রবাহ বা ধারাকে আমূল দিক পরিবর্তনের একটি কুপ্রচেষ্টাও ছিল। শুধু দিক পরিবর্তন নয়, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও দর্শনাশ্রিত গতিধারা চিরতরে রুদ্ধ করে বাংলা ও বাঙালির চিরায়ত রাজনীতি, সংস্কৃতি, ইতিহাস এবং ঐতিহ্যবিরোধী দর্শন চালুরও অপচেষ্টা হয়েছে।

১৫ আগস্ট ’৭৫ সালের সকাল ছিল রাতের চেয়েও অন্ধকার। সৌভাগ্য বাঙালির যে, সেদিনের নৃশংসতা থেকে সৌভাগ্যক্রমে বেঁচে গিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধুর দুই কন্যা শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানা। শেখ হাসিনা তার পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো করতে পারছেন বলেই আজ মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, দর্শন, আদর্শকে আঁকড়ে ধরে বাঙালি জাতীয়তাবাদের পথে চলতে পারছে। তিনি বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার করেছেন। কার্যকরও করেছেন বিচারের রায়। স্বাধীনতাবিরোধী মহল ছাড়া এটা সব বাঙালির কাঙ্ক্ষিত ছিল।

এবারো আগস্টের প্রথম দিন থেকেই শুরু হচ্ছে আওয়ামী লীগসহ সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোর মাসব্যাপী কর্মসূচি। শোকের মাসের প্রথম দিন ১২টা ১ মিনিটে প্রথম প্রহরে আলোর মিছিলের মধ্য দিয়ে মাসব্যাপী কর্মসূচির সূচনা ঘটবে। মিছিলটি ধানমন্ডি ৩২ নম্বর সড়কে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর অভিমুখে যাত্রা করবে। আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ এ আলোর মিছিলের আয়োজন করেছে।

শোকের মাসের প্রথম দিন আজ বুধবার রয়েছে বঙ্গবন্ধু সমাজকল্যাণ পরিষদের আলোচনা। বিকাল সাড়ে ৪টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘আমরা সূর্যমুখী’ আজ বিকাল ৫টায় জাতীয় জাদুঘর সিনেপ্লেক্স মিলনায়তনে ‘বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন : গণমানুষের উন্নয়ন’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও আবৃত্তি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে।

এদিকে শোকের মাস আগস্ট জুড়ে কালো ব্যাজ ধারণ করবেন সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। গতকাল মঙ্গলবার সচিবালয়ে অনুষ্ঠিত এক সভায় এ সিদ্ধান্ত হয়। জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক সভায় সভাপতিত্ব করেন। সব জেলা প্রশাসন ও বিভাগীয় প্রশাসনকে এমন কর্মসূচি নেওয়ার জন্য নির্দেশনা দেওয়া হবে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads