• শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
বঙ্গবন্ধু ছিলেন পরীক্ষিত বাঙালি

এক স্বপ্নভঙ্গের বিস্ময়-বেদনা নিয়ে শুরু হয়েছিল দিন

আর্ট : রাকিব

জাতীয়

বঙ্গবন্ধু ছিলেন পরীক্ষিত বাঙালি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১১ আগস্ট ২০১৮

বাঙালির জাতীয় শোক ও সন্তাপের দিন ১৫ আগস্ট। স্বাধীন বাংলাদেশের স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করা হয় ১৯৭৫ সালের এই দিনে। পরিকল্পনা ছিল সুদূরপ্রসারী। শুধু বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবকে হত্যা নয়, গভীর ষড়যন্ত্র ছিল তাঁর আদর্শকেও নির্বাসনে পাঠানোর। ঘাতকের বুলেট সেদিন ধানমন্ডির ওই বাড়িতে শেখ পরিবারের কাউকে রেহাই দেয়নি। ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু বা তাঁর পরিবারের সদস্য ও ঘনিষ্ঠ সহকর্মীদের হত্যা করেই ক্ষান্ত হয়নি, এ দেশের রাষ্ট্রক্ষমতা কুক্ষিগত করে হত্যাকারীদের নিরাপদ জীবন নিশ্চিত করেছিল, পুরস্কৃত করেছিল। খুনিদের রক্ষা করার জন্য দেশের সংবিধানেও হাত দেওয়া হয়েছিল। এই পৈশাচিক হত্যাকাণ্ডের বিচার রহিত করা হয়েছিল ইনডেমনিটি আইন পাস করার মাধ্যমে। কাজেই এটা স্পষ্ট যে, সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার ঘটনা শুধু ব্যক্তি মুজিবকে হত্যার প্রয়াস ছিল না, ছিল জাতির স্বাধীনতার শক্তিকে হত্যার অপচেষ্টা। ব্যক্তি বঙ্গবন্ধুকে খুন করে তারা একটি আদর্শকে খুন করতে চেয়েছিল। কিন্তু আজকের দিনে বঙ্গবন্ধু অনেক বেশি প্রাসঙ্গিক। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন পরীক্ষিত বাঙালি। বাঙালি জাতির মঙ্গল কামনায় উৎসর্গ করেছেন তিনি তাঁর সারা জীবন।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads