• সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
সাংবাদিক মোস্তাক হোসেন আর নেই

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাবেক সভাপতি ও দৈনিক ভোরের ডাকের বিশেষ প্রতিনিধি মোস্তাক হোসেন

সংগৃহীত ছবি

শোক সংবাদ

সাংবাদিক মোস্তাক হোসেন আর নেই

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাবেক সভাপতি ও দৈনিক ভোরের ডাকের বিশেষ প্রতিনিধি মোস্তাক হোসেন (৫৮) আর নেই। গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় জাতীয় হূদরোগ ইনস্টিটিউট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন তিনি (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। বেশ কিছু দিন ধরে তিনি কিডনি, হূদরোগসহ নানা সমস্যায় ভুগছিলেন। তিনি স্ত্রী, এক পুত্র, এক কন্যা, আত্মীয়স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। গতকাল বেলা ৩টায় ডিআরইউ চত্বরে তার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। এতে ডিআরইউ সদস্য ছাড়াও বিএফইউজে, ডিইউজেসহ বিভিন্ন সংগঠনের সদস্যরা অংশ নেন। পরে মোস্তাক হোসেনের প্রতি শেষ শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়। এরপর জাতীয় প্রেস ক্লাবে দ্বিতীয় জানাজা শেষে পরিবারের সদস্যরা দাফনের জন্য মরদেহ বরিশালের গ্রামের বাড়িতে নিয়ে যান।

ডিআরইউর সাবেক সভাপতির মৃত্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ শোক প্রকাশ করেছেন। এ ছাড়া তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা শোক প্রকাশ করেছেন। মোস্তাক হোসেনের মৃত্যুতে ডিআরইউর কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ শুকুর আলী শুভ গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

মোস্তাক হোসেনের মৃত্যুতে বরিশাল বিভাগ সাংবাদিক সমিতি গভীর শোক প্রকাশ করেছে। এক বিবৃতিতে সমিতির সভাপতি ও বাংলাদেশের খবরের সম্পাদক আজিজুল ইসলাম ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম মির্জা শোকাহত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা ও মরহুমের রুহের মাগফেরাত কামনা করেছেন।

১৯৬০ সালের ২ ডিসেম্বর বরিশালে এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন মোস্তাক হোসেন। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র ছিলেন। সাংবাদিকদের অধিকার আদায়ে তিনি বিভিন্ন সময় নেতৃত্ব দিয়েছেন। তিনি সাপ্তাহিক বিচিত্রা দিয়ে সাংবাদিকতা জীবন শুরু করে দৈনিক আজকের কাগজসহ বিভিন্ন পত্রিকায় কাজ করেন। সবশেষ তিনি দৈনিক ভোরের ডাকে কর্মরত ছিলেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads