• বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১১ আশ্বিন ১৪২৫
ads

শারীরিক বিজ্ঞান

রক্তচাপ মাপার পরিধেয় ডিভাইস নিয়ে কাজ করছে মাইক্রোসফট

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ৩১ জুলাই ২০১৮

স্মার্টওয়াচ হোক কিংবা ফিটনেস ট্র্যাকার, পরিধেয় ডিভাইসের জনপ্রিয়তা এখন তুঙ্গে। অ্যাপল ওয়াচ থেকে শুরু করে শাওমির মি ব্যান্ড, সব ডিভাইসই পেয়েছে ব্যাপক জনপ্রিয়তা। এসব ডিভাইসে সাধারণত হার্টরেট, স্লিপ সাইকেল এবং স্টেপ ট্র্যাকার দেখা যায়। এর বাইরে কিছু প্রতিষ্ঠান এখন রক্তচাপ মাপার সুবিধাও যুক্ত করতে কাজ করে যাচ্ছে। এ বছরের শুরুর দিকে অনুষ্ঠিত কনজ্যুমার ইলেকট্রনিকস শো’তে ‘হার্টগাইড’ নামের একটি ডিভাইস প্রদর্শন করেছিল ওমরন। ডিভাইসটি রক্তচাপ মাপতে সক্ষম। এছাড়া স্যামসাংও গ্যালাক্সি এস৯ এবং এস৯ প্লাসে আলাদা সেন্সরের মাধ্যমে রক্তচাপ মাপার সুবিধা যুক্ত করেছিল।

এবার এ তালিকায় নাম লেখাচ্ছে মাইক্রোসফট। তবে কিছুটা চমক থাকছে মাইক্রোসফটের নতুন এ উদ্ভাবনে। সবাই যেখানে রিস্টব্যান্ড বা স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে এ সুবিধা দিচ্ছে মাইক্রোসফট সেখানে হেঁটেছে ভিন্নপথে। স্মার্টগ্লাসে রক্তচাপ মাপার সেন্সর যুক্ত করতে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানটি। এরই মধ্যে ডিভাইসটির প্যাটেন্টও লাভ করেছে মাইক্রোসফট। মাইক্রোসফট রিসার্চের ক্রিস্টিয়ান হোলজ এবং এডওয়ার্ড ওয়াং এক প্রতিবেদনে ডিভাইসটির বিস্তারিত তথ্যও তুলে ধরেছেন।

তারা বলছেন, এই স্মার্টগ্লাসের দুই বাহুতে রয়েছে অপটিক্যাল সেন্সর যা ব্যবহারকারীর মুখের তিনটি আলাদা জায়গার পালস সংগ্রহ করে এবং পরবর্তীকালে এসব তথ্য বিশ্লেষণের মাধ্যমে রক্তচাপ নির্ণয় করে। এর বাইরে আরো কয়েকটি সেন্সর থাকছে স্মার্টগ্লাসটিতে। মাইক্রোসফটের এ প্রতিবেদনে দাবি করা হয়েছে, পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহারে ডিভাইসটি বেশ সফলভাবেই রক্তচাপ সংক্রান্ত তথ্য দিতে সক্ষম হয়েছে। এছাড়া প্রচলিত পদ্ধতিগুলোর চেয়েও দ্রুত তথ্য পাওয়া সম্ভব হয়েছে গ্লাসটি থেকে। তবে স্মার্টগ্লাসটির বিষয়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য হলো, এটি কেবল সিসটোলিক প্রেসার বা সর্বোচ্চ চাপ কত সেটি জানাতে পারবে। ডায়াস্টোলিক বা নিম্নচাপ কতো সে বিষয়ে তথ্য জানার সুযোগ এ ডিভাইসে থাকছে না। অথচ হূদযন্ত্রের কোনো রোগের ক্ষেত্রে চিকিৎসকরা ডায়াস্টোলিক প্রেসারকেই বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকেন।

মাইক্রোসফট এখনো ডিভাইসটি নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা চালাচ্ছে। ডিভাইসটি বাজারে আসবে কি-না, তাও এখন পর্যন্ত নিশ্চিত নয়। মাইক্রোসফট, অ্যাপলসহ বড় প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানগুলো এমন অনেক ডিভাইসের প্রোটোটাইপ নিয়েই কাজ করে যা শেষ পর্যন্ত আলোর মুখ দেখে না। তবে মাইক্রোসফটের এ ডিভাইসটি বাজারে এলে রক্তচাপ মাপার পদ্ধতিতে বড় পরিবর্তন ঘটতে পারে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads