• বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads

ধর্ম

রমজান ও রোজাবিষয়ক প্রশ্নোত্তর

  • প্রকাশিত ১৮ মে ২০১৮

সূর্যাস্ত হয়েছে মনে করে ইফতার করার পর দেখা গেল এখনো সূর্যাস্ত হয়নি। এমন অবস্থায় রোজা কি ভেঙে যাবে? ভেঙে গেলে একটি রোজা কাজা করাই কি যথেষ্ট হবে, নাকি কাফফারাও দিতে হবে?

উত্তর : প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে রোজা ভেঙে যাবে। এ ধরনের ক্ষেত্রে হুকুম হলো, ভুল সম্পর্কে অবগত হওয়ার পর সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার ইত্যাদি থেকে বিরত থাকবে এবং পরবর্তী সময়ে একটি রোজা কাজা করে নেবে। তবে কাফফারা আদায় করতে হবে না। হজরত হানজালা (রা.) বলেন, ‘আমি রমজান মাসে হজরত উমর (রা.)-এর দরবারে উপস্থিত ছিলাম। সেখানে কিছু পানীয় পেশ করা হলো এবং কেউ কেউ সূর্য ডুবে গেছে মনে করে তা পান করল। তখন মুয়াজ্জিন উচ্চৈঃস্বরে বললেন, আমিরুল মুমিনিন! আল্লাহর কসম, সূর্য এখনো ডোবেনি, তা উদিত অবস্থায় আছে। তখন হজরত উমর (রা.) বললেন, যারা ইফতার করে ফেলেছে, তারা যেন তার পরিবর্তে আরেকটি রোজা রাখে। আর যারা ইফতার করেনি, তারা যেন সূর্যাস্ত পর্যন্ত তা পূর্ণ করে।’ [মুসান্নাফ ইবনে আবি শাইবা ৬/১৫০]

একজন রমজান মাসে রোজা অবস্থায় ভাইকে রক্ত দিয়েছেন। এতে কি তার রোজা ভেঙে গেছে বা কোনো ক্ষতি হবে?

উত্তর : রোজা অবস্থায় রক্ত দিলে রোজা নষ্ট হয় না। কারণ শরীর থেকে রক্ত বের হওয়া রোজা ভঙ্গের কারণ নয়। হজরত আবদুল্লাহ ইবনে আব্বাস (রা.) বলেন, রসুলুল্লাহ (সা.) রোজা অবস্থায় শিঙ্গা লাগিয়েছেন। সুতরাং রোজা অবস্থায় প্রয়োজনে রক্ত দেওয়া যাবে। তবে রক্ত দেওয়ার কারণে কারো যদি এত দুর্বল হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা হয় যে সে রোজা পূর্ণ করতে পারবে না, তাহলে তার জন্য রক্ত দেওয়া মাকরু হবে। তাই এ ধরনের ব্যক্তি জরুরি প্রয়োজন ছাড়া দিনের বেলা রক্ত দেবে না। [সহিহ বোখারি ১/২৬০; আলমুহিতুল বুরহানি ৩/৩৫৬]

আমি রোজা অবস্থায় মিসওয়াক করছিলাম। হঠাৎ দাঁতের মাড়ি থেকে রক্ত বের হয়ে থুতুর সঙ্গে তা পেটে চলে যায়। এতে কি আমার রোজা ভেঙে গেছে?

উত্তর : প্রশ্নোক্ত ক্ষেত্রে গলায় যদি রক্তের স্বাদ অনুভূত হয় কিংবা রক্ত যদি থুতুর সমপরিমাণ বা বেশি হয়ে থাকে তাহলে তা গিলে ফেলার দ্বারা রোজাটি ভেঙে গেছে। এ ক্ষেত্রে ওই রোজা কাজা করতে হবে। আর যদি থুতুর চেয়ে রক্তের পরিমাণ কম হয় এবং গলায় স্বাদও অনুভূত না হয় তাহলে রোজাটি ভাঙেনি, তা সহিহ হয়েছে। [আলমুহিতুল বুরহানি ৩/৩৫০; খুলাসাতুল ফাতাওয়া ১/২৫৪; আদ্দুররুল মুখতার ২/৩৯৬]

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads