• বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
নামাজ কত প্রকার ও কী কী

আল্লাহকে স্মরণ করা এবং তাঁর আনুগত্য প্রকাশের সর্বশ্রেষ্ঠ ইবাদত নামাজ

ছবি: সংগৃহীত

ধর্ম

নামাজ কত প্রকার ও কী কী

  • মিরাজ রহমান
  • প্রকাশিত ২৬ জুলাই ২০১৮

নামাজ- মুমিনের মিরাজ। প্রার্থনার জায়নামাজ। আল্লাহকে স্মরণ করা এবং তাঁর আনুগত্য প্রকাশের সর্বশ্রেষ্ঠ ইবাদত নামাজ। প্রত্যেক প্রাপ্তবয়স্ক, বুদ্ধিমান এবং পবিত্র মুসলিম নর-নারীর ওপর প্রতিদিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ ফরজ। নামাজ দ্বীন ইসলামের গুরুত্বপূর্ণ স্তম্ভ। দৈনন্দিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ, শুক্রবারের জুমার নামাজ এবং দুই ঈদের নামাজ ছাড়াও আরো অনেক প্রকারের নামাজ রয়েছে, যা হয়তো অনেক মুসলমানেরই অজানা।

বস্তুত নামাজ বা সালাতের কোনো প্রকার নেই। নামাজ নামাজই। নামাজের গুরুত্ব-তাৎপর্য ও ইসলামী বিধানগত স্থান-অবস্থানের বিবেচনায় নামাজকে বিভিন্ন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। ফরজ, ওয়াজিব, সুন্নত ও নফল বা মুস্তাহাব- নামাজকে মূলত এসব ভাগেই বিভক্ত বা প্রকারভেদ করা হয়। এক. ফরজ নামাজ হলো ওই নামাজ, যা অবশ্যই আদায় করতে হবে। না করলে গুনাহ হবে। ফরজ নামাজ আবার দুই প্রকার- ১. ফরজে আইন। যেসব নামাজ আদায় করা প্রত্যেকের ওপর আলাদা আলাদাভাবে ফরজ, তাকে ফরজে আইন নামাজ বলা হয়। যেমন- দৈনন্দিন পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ। ২. ফরজে কেফায়া। যে নামাজ প্রত্যেকের ওপর আলাদা আলাদাভাবে ফরজ নয়। এক এলাকা থেকে কতক মানুষ আদায় করলে সবার ওপর থেকে আদায় হয়ে যায়। যেমন- জানাজার নামাজ। দুই. ফরজ নামাজের পর পরই যাকে গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে তা-ই ওয়াজিব নামাজ। যেমন- দুই ঈদের ও বিহতরের নামাজ। ফরজ নামাজের সঙ্গে ইসলাম যে নামাজকে অধিক গুরুত্ব দিয়েছে সেটা হলো সুন্নত। সুন্নত নামাজ আবার দুই প্রকার। ১. সুন্নতে মুয়াক্কাদা- ওইসব নামাজ যা রসুল (সা.) নিয়মিত আদায় করতেন। যেমন- ফজরের নামাজের আগের দুই রাকাত সুন্নত, জোহরের ফরজের আগের চার রাকাত ও পরে দুই রাকাত, মাগরিবের ফরজের পরের দুই রাকাত, এশার ফরজের পরের দুই রাকাত এবং তারাবির নামাজ। ২. সুন্নতে গায়রে মুয়াক্কাদা- ওইসব নামাজ যা রসুল (সা.) নিয়মিত আদায় করতেন না। বিশেষ কারণ বা প্রয়োজনে ছেড়ে দিতেন। যেমন- আসরের ফরজের আগে চার রাকাত নামাজ ও এশার ফরজের আগে চার রাকাত। এছাড়া আরো রয়েছে নফল নামাজ। যে নামাজ পড়লে সওয়াব পাওয়া যায়, না পড়লে গুনাহ হয় না, তা-ই নফল নামাজ। তাহাজ্জুদ, এশরাক, চাশত, আওয়াবিন, তাহিয়্যাতুল অজু, দুখুলিল মাসজিদ, সালাতুল হাজাত, সালাতুস শোকর, সালাতুত তাওবা ও সালাতুল সাকরাতুল মউতসহ বিভিন্ন প্রকারের নফল নামাজ রয়েছে।

 

লেখক : আলেম ও সাংবাদিক

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads