• বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ১ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
নাগরিক সেবায় সরকারি যত কল সেন্টার

স্বাস্থ্যসেবা,আইনগত পরামর্শ, কৃষি পরামর্শসহ বিভিন্ন ধরনের কল সেন্টার রয়েছে এ তালিকায়

সংগৃহীত ছবি

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

নাগরিক সেবায় সরকারি যত কল সেন্টার

  • এম রেজাউল করিম
  • প্রকাশিত ০২ সেপ্টেম্বর ২০১৮

প্রযুক্তির ব্যবহারের মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের সেবা প্রাপ্তি আরো সহজ করতে এবং সহজেই প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করতে বিভিন্ন কল সেন্টার পরিচালনা করছে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগ। স্বাস্থ্যসেবা থেকে শুরু করে আইনগত পরামর্শ, কৃষি পরামর্শ, প্রবাসীদের জন্য সহায়তাসহ বিভিন্ন ধরনের কল সেন্টার রয়েছে এ তালিকায়। এসব কল সেন্টারের খবর থাকছে আজ-

এক নম্বরে সরকারি সেবা

দেশের সকল নাগরিককে বিভিন্ন সামাজিক সমস্যা সম্পর্কে প্রতিকারের জন্য সরকারি সেবা প্রাপ্তির পদ্ধতি, জনপ্রতিনিধি ও সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে যোগাযোগের তথ্য, বিভিন্ন এলাকার পর্যটনের স্থানগুলো এবং বিভিন্ন জেলা সম্পর্কিত বিস্তারিত তথ্য জানতে কল সেন্টার চালু করা হয়েছে। দেশের মধ্যে যেকোনো অপারেটর থেকে ৩৩৩ এবং বিশ্বের যেকোনো দেশ থেকে ০৯৬৬৬৭৮৯৩৩৩ নম্বরে কল করে এই সরকারি বিভিন্ন তথ্যসেবা, কর্মকর্তাদের তথ্য, বিভিন্ন সামাজিক সমস্যার প্রতিকার এবং পর্যটন ও জেলা সম্পর্কিত যেকোনো তথ্য জানা যাবে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হেল্পলাইন

কোনো গ্রাহক কোনো ব্যাংকে গিয়ে হয়রানির শিকার হলে বা কোনো ব্যাংকের কর্মকর্তা গ্রাহককে যথাযথ সেবা না দিলে এ সংক্রান্ত অভিযোগ জানাতে হেল্পলাইন চালু করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এর শর্ট কোড হচ্ছে ১৬২৩৬। ২০১১ সালে চালু করা এই হেল্পলাইনে ফোন করলে তাৎক্ষণিকভাবে ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

কৃষি কল সেন্টার

কৃষকদের কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ বিষয়ে যেকোনো সমস্যার তাৎক্ষণিক পরামর্শ দিতে কৃষি বিষয়ক সরকারি কল সেন্টার পরিচালনা করেছে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ কৃষি তথ্য সার্ভিস। কৃষি কল সেন্টারের শর্ট কোড নাম্বার ১৬১২৩। যেকোনো মোবাইল অপারেটর থেকে প্রতি মিনিটে মাত্র ২৯ পয়সা খরচ হবে তবে শুধু গ্রামীণফোন থেকে এ নম্বরে বিনামূল্যে কল করা যায়।

স্বাস্থ্য বাতায়ন

দেশের যেকোনো প্রান্তে অবস্থানকারী নাগরিকদের জন্য স্বাস্থ্য সম্পর্কিত তথ্য ও পরামর্শ প্রদানকারী ‘স্বাস্থ্য বাতায়ন’ নামে কল সেন্টার চালু করেছে সরকার। সপ্তাহের সাত দিন ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যেকোনো সময় স্বাস্থ্য বাতায়নের শর্ট কোড নাম্বার ১৬২৬৩ তে কল করে অভিজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া, দেশের যেকোনো হাসপাতাল, ক্লিনিক এবং ডাক্তারদের প্রয়োজনীয় তথ্য ও ফোন নম্বর নেওয়া, নিকটবর্তী অ্যাম্বুলেন্সের জরুরি তথ্য ও বুকিং সুবিধা গ্রহণ করা, যেকোনো দুর্ঘটনার তথ্য গ্রহণ ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে জানানো এবং সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতাল কিংবা স্বাস্থ্যসেবা বিষয়ক যেকোনো অভিযোগ জানানো যাবে।

তথ্য আপা

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে থাকা নারীদের কাছে কৃষি, স্বাস্থ্য, শিক্ষা, ব্যবসা, জেন্ডার ও আইন সংক্রান্ত যেকোনো তথ্য ও পরামর্শ সেবা পৌঁছে দিতে ২০১১ সালের ৫ জুলাই শুরু হয় ‘তথ্য আপা ১০৯২২’ কল সেন্টার। জাতীয় মহিলা সংস্থা কর্তৃক বাস্তবায়িত এই কল সেন্টারে কল করলে প্রতি মিনিট ২ টাকা হারে খরচ করতে হবে।

চাইল্ড হেল্পলাইন

সমাজসেবা অধিদফতরের তত্ত্বাবধানে অপরাজেয় বাংলাদেশ নামক একটি বেসরকারি সংস্থা সুবিধাবঞ্চিত নির্যাতিত ও বিপদাপন্ন শিশুদের ২৪ ঘণ্টা জরুরি সহায়তা সেবা প্রদানের কল সেন্টারটি পরিচালনা করছে, যা চাইল্ড হেল্পলাইন নামে পরিচিত। চাইল্ড হেল্পলাইনের ‘১০৯৮’ নম্বরটিতে বিনামূল্যে ফোন করে শিশু অধিকার লঙ্ঘন, নির্যাতন, নিগ্রহ বা সামাজিক নিরাপত্তা ব্যাহত হওয়ার ঘটনা এবং শিশুদের সুরক্ষার বিষয়ে তথ্য জানাতে পারবে।

নারী ও শিশু বিষয়ক হেল্পলাইন

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নারী নির্যাতন প্রতিরোধকল্পে মাল্টিসেক্টরাল কর্মসূচির আওতায় নারী ও শিশুদের বিরুদ্ধে সহিংসতা প্রতিরোধে ‘নারী ও শিশু বিষয়ক হেল্পলাইন’ চালু করা হয়েছে। কল সেন্টারের টোল ফ্রি নম্বর ১০৯ যদি কোনো বিপন্ন জরুরি সাহায্য চান তাহলে তৎক্ষণাৎ ঘটনাস্থলের জরুরি খবর স্থানীয় প্রশাসন, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠান, পুলিশ প্রশাসন ও সংশ্লিষ্ট এনজিও সংগঠন- এই চার জায়গায় একই সঙ্গে পাঠানো হয়ে থাকে।

বিটিসিএল কল সেন্টার

নিজেদের সেবা গ্রাহকদের দ্বারপ্রান্তে পৌঁছাতে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ পরিচালিত বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) তাদের নিজস্ব কল সেন্টার চালু করে। বিটিসিএলের এ কল সেন্টারের শর্ট কোড ১৬৪০২। যেখানে ফোন করে গ্রাহকরা (শুধুমাত্র ঢাকা জেলার) তাদের বিটিসিএল ফোন ও বিলের ব্যাপারে নানা রকম তথ্য জানতে এবং অভিযোগ করতে পারবেন।

বিটিআরসি

বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার ক্রমবর্ধমান উন্নয়ন আশাব্যঞ্জক। টেলিযোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে টেলিযোগাযোগ অপারেটরের নানাবিধ সেবা ব্যবহারকারীর সংখ্যা যেমন বেড়েছে, তেমনি অপারেটরদের সেবা সংক্রান্ত বিষয়ে গ্রাহকদের অভিযোগও বেড়েছে। এসব অভিযোগের বিষয়ে সরাসরি অভিযোগ জানানো যাবে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনে (বিটিআরসি)। এ জন্য রয়েছে বিটিআরসির একটি হেল্পলাইন নম্বর ১০০। এখানে যেকোনো গ্রাহক টেলিযোগাযোগ সংক্রান্ত অভিযোগের বিষয়ে জানাতে পারবেন।

দুর্যোগ-আগাম বার্তা

দুর্যোগের আগাম বার্তা প্রদানের লক্ষ্যে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদফতরের পরিচালনায় নির্মিত হয়েছে ‘আগাম বার্তা ১০৯৪১’ কল সেন্টার। এখান থেকে আবহাওয়া ও দুর্যোগ বার্তাসহ বন্যা পূর্বাভাস পাওয়া যাবে। এ ছাড়া নদীবন্দরগুলোর জন্য সতর্ক সঙ্কেত আইভিআরের মাধ্যমে প্রদান করা হয়। এ জন্য ১০৯৪১ নম্বরে ডায়াল করতে হবে।

ঢাকা ওয়াসা

ঢাকা পানি সরবরাহ এবং পয়োনিষ্কাশন কর্তৃপক্ষ (ঢাকা ওয়াসা) গ্রাহকদের জন্য রয়েছে একটি হেল্পলাইন। এখানে পানি, পয়োনিষ্কাশন এবং ড্রেনেজ সংক্রান্ত ও বিল সংক্রান্ত যেকোনো অভিযোগ দাখিল করতে পারবেন গ্রাহকরা। এ কল সেন্টারটির শর্ট কোড নম্বর ১৬১৬২।

জাতীয় পরিচয়পত্র

নাগরিকরা তাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নিবন্ধন, সংশোধন ও হালনাগাদ সংক্রান্ত তথ্য ও পরামর্শ প্রদানের জন্য নির্বাচন কমিশন একটি হেল্পলাইন চালু করেছে। নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায় দেশের যেকোনো প্রান্ত থেকে ১০৫ এ কল করে নাগরিকরা এই সেবা নিতে পারবেন।

সরকারি আইন সেবা

দরিদ্র ও দুস্থ ব্যক্তিদের বিনামূল্যে আইনি সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে এ বছরের এপ্রিল মাসে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করে এই হেল্পলাইন। এর শর্ট কোড নম্বরটি ১৬৪৩০। এই হেল্পলাইনটি পরিচালনার দায়িত্বে রয়েছে আইন ও বিচার বিভাগের অধীনস্থ জাতীয় আইনগত সহায়তা সংস্থা। আইন সেবার এ হেল্পলাইনে কল করে দুস্থ ও দরিদ্র ব্যক্তিরা আইনি পরামর্শ ছাড়াও সরাসরি আইনি সহায়তাও পাবেন।

ইউনিয়ন পরিষদ হেল্পলাইন

ইউনিয়ন পরিষদ পর্যায়ে যেকোনো সরকারি ভাতা বা অনুদান সংক্রান্ত তথ্য ও পরামর্শ সেবা সাধারণ মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে ইউনিয়ন পরিষদ হেল্পলাইন ১৬২৫৬ চালু করেছে সরকার। স্থানীয় সরকার বিভাগের লোকাল গভর্ন্যান্স সাপোর্ট প্রজেক্টের তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হচ্ছে এই ইউনিয়ন পরিষদের সেবা ও কার্যক্রম সংক্রান্ত তথ্য।

প্রবাসবন্ধু কল সেন্টার

অবস্থানকারী বাংলাদেশি কর্মীদের যেকোনো সমস্যা সমাধানে প্রবাসবন্ধু নামের একটি কল সেন্টার চালু করেছে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। বিদেশে অবস্থান করা প্রবাসীরা যেকোনো সমস্যা সমাধান অথবা তথ্যের দরকারে সরাসরি +৮৮০৯৬৫৪৩৩৩৩৩৩ নম্বরে ফোন করে নিজেদের সমস্যার কথা জানাতে পারবেন। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড পরিচালিত কল সেন্টারটি সৌদি আরব, জর্ডান ও মালয়েশিয়ায় কর্মরত বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য চালু রয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads