• সোমবার, ১৭ জুন ২০১৯, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
ঢাকাসহ সারা দেশে ৫৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

রাজদানীর চকবাজারে গতকাল ভেজালবিরোধী অভিযান চালান ডিএমপির ভ্রাম্যমাণ আদালত

ছবি : বাংলাদেশের খবর

অপরাধ

ঢাকাসহ সারা দেশে ৫৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৫ জুন ২০১৮

খাদ্যে ভেজাল, বাসি-পচা খাবার বিক্রি এবং ওজনে কারচুপির অভিযোগে সারা দেশে ৫৪ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিএসটিআইয়ের তত্ত্বাবধানে গতকাল সোমবার ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) ও জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর পৃথক এ অভিযান চালায়।

ডিএমপি পরিচালিত অভিযানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে ইফতারসামগ্রী তৈরি ও বিক্রির অভিযোগে রাজধানীর চকবাজারের ইফতার মার্কেটের পাঁচ দোকানিকে জরিমানা করা হয়। এর মধ্যে বিসমিল্লাহ কাসমেরী বিরিয়ানি হাউজকে ৫০ হাজার, ‘বড় বাপের পোলায় খায়’ দোকানিকে ২০ হাজার, মীম শাহী মোরগ পোলাওকে ১০ হাজার, শহীদের ইফতারের দোকানকে ১০ হাজার ও মোদাশের খেজুরের দোকানকে ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযান চলাকালে ভ্রাম্যমাণ আদালতের উপস্থিতি টের পেয়ে আমানিয়া রেস্টুরেন্টসহ কয়েকটি দোকান বন্ধ করে পালিয়ে গেলে তাদের মধ্যে একজনকে ধরে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়।

ডিএমপির নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মশিউর রহমান এ অভিযান পরিচালনা করেন। তিনি বলেন, চকবাজারের ইফতারের একটি সুনাম আছে। কিন্তু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বেশি মুনাফা লাভের আশায় ভেজাল ও বাসি-পচা খাবার বিক্রি করছিল। সেখানে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার পরিবেশন ও পোড়া তেলে খাবার তৈরি করা ছাড়াও বেশ কিছু ইফতারসামগ্রী দিয়ে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল, যা খাওয়ার অনুপযোগী।

অপরদিকে রামপুরায় নোংরা পরিবেশে দই ও মিষ্টি তৈরি এবং ওজনে কম দেওয়ার অপরাধে চারটি প্রতিষ্ঠান থেকে ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

এর মধ্যে দেশি সুপারশপকে ৭৫ হাজার টাকা, মধুবনকে এক লাখ, আল্লার দান বিরিয়ানি হাউজকে ১০ হাজার ও রয়েল বিরিয়ানি হাউজকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

অভিযান শেষে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপপরিচালক (উপসচিব) মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার বলেন, দেশি সুপারশপ দেশের বাইরের চকোলেট, ক্যান্ডি, সফট ড্রিঙ্কস বিক্রি করলেও পণ্যগুলোর গায়ে আমদানিকারকের কোনো সিল বা লোগো ছিল না। এ ছাড়া মধুবন মিষ্টান্ন ভান্ডার অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে মিষ্টি তৈরি করছিল। এমনকি দই, বিস্কুট ও পাউরুটির গায়ে কোনো মেয়াদ ছিল না।  এ ছাড়া দইয়ের গায়ের ট্যাগের সঙ্গে ওজনের কোনো মিল পাওয়া যায়নি। আল্লার দান বিরিয়ানি হাউজ ও রয়েল বিরিয়ানি হাউজে নোংরা ও অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে খাবার তৈরি করা হচ্ছিল। যা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর।

এদিকে দেশের বিভিন্ন জেলায় অভিযানে আরো ৪৪টি প্রতিষ্ঠান থেকে ১ লাখ ৯৯ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads