• রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
গাড়িতে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে গণপিটুনি

গণপিটুনির শিকার ব্যবসায়ী মাহমুদুল হক রনি

সংগৃহীত ছবি

অপরাধ

গাড়িতে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে গণপিটুনি

  • নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ১১ জুন ২০১৮

রাজধানীতে ব্যক্তিগত গাড়িতে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে গণপিটুনি দিয়ে পুলিশে হস্তান্তর করেছে স্থানীয়রা। গত শনিবার রাত আড়াইটার দিকে এ গণপিটুনির শিকার ব্যবসায়ী মাহমুদুল হক রনি। তাকে মদ্যপ অবস্থায় পুলিশের কাছে সোপর্দ করে জনতা। এ সময় তার গাড়িচালক কৌশলে পালিয়ে যায়। এ ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

এদিকে ধর্ষণচেষ্টার অভিযোগ এনে তরুণী দীনা বেগম গতকাল রোববার বিকালে শেরেবাংলা নগর থানায় মামলা করেছে। মামলায় রনিকে গ্রেফতারও দেখানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি গণেশ গোপাল বিশ্বাস।

মাহমুদুল হক রনি থানায় সাংবাদিকদের বলেন, গাজীপুরের কাপাসিয়ায় যাওয়ার জন্য ধানমণ্ডির ঝিগাতলার বাসা থেকে গভীর রাতে নিজ গাড়ি নিয়ে বের হন। গাড়ির মধ্যে তিনি মাত্রাতিরিক্ত অ্যালকোহল পান করায় কিছুটা বেসামাল ছিলেন। তার দাবি, অবস্থার সুযোগ নিয়ে তার গাড়িচালক সংসদ ভবন-সংলগ্ন খেজুর বাগান এলাকা থেকে ‘দুই যৌনকর্মী’কে গাড়িতে তোলে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে ওসি গণেশ গোপাল বলেন, রাত আড়াইটার দিকে ওই দুই মেয়ের মধ্যে একজনকে কলেজগেট এলাকায় নামিয়ে দিলে ওই মেয়ে চিৎকার শুরু করে। তার চিৎকারে পথচারীসহ সবাই এগিয়ে এসে গাড়িটি আটকায় এবং চালক ও রনিকে বেধড়ক মারধর করে। পুরো ঘটনাটি এক পথচারী ভিডিও করে তার ফেসবুকে দিলে তা ভাইরাল হয়। তাতে মারধরের চোটে কাপড় ছিঁড়ে গেলে চালককে নগ্ন অবস্থায় দৌড়ে পালিয়ে যেতে দেখা যায়। মারধরের পর রনি ও তার গাড়িটি পথচারীরা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে বলে জানান ওসি। রনিকে হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, তার মদপানের নমুনা পাওয়া গেছে। গাড়িচালককে খুঁজে বের করার চেষ্টা চলছে জানিয়ে পুলিশ কর্মকর্তা গোপাল বলেন, দীনা বেগমসহ দুই তরুণীর অভিযোগ- তাদের ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়। এ অভিযোগে মামলা হয়েছে। মামলায় রনিকে গ্রেফতারও দেখানো হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads