• সোমবার, ২০ মে ২০১৯, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫
ads
ঝিনাইদহে রড ছাড়াই স্কুল ভবনের লিনটেল ঢালাই!

সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের রড না দিয়ে দ্বিতল ভবনের লিনটেল ঢালাইয়ের কাজ

সংগৃহীত ছবি

অপরাধ

ঝিনাইদহে রড ছাড়াই স্কুল ভবনের লিনটেল ঢালাই!

  • ঝিনাইদহ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৭ জুলাই ২০১৮

রডের স্থলে বাঁশ দিয়ে সরকারি প্রতিষ্ঠানের ভবন নির্মাণের খবর পুরনো। এবার ঝিনাইদহে ঘটেছে আরো চমকপ্রদ ঘটনা। সদর উপজেলার বালিয়াডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতল ভবনের লিনটেল ঢালাইয়ের কাজে রড না দিয়ে শুধু ইট, খোয়া আর বালু ব্যবহার করা হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার ঘটনাটি জানাজানি হলে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী নির্মাণকাজ বন্ধ করে দেয়।

বালিয়াডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলিবর্দি বিশ্বাস গতকাল শুক্রবার জানান, বিদ্যালয়টির একতলা ও দোতলা ভবনের নির্মাণকাজ চলতি বছরের ডিসেম্বরে শেষ হওয়ার কথা। প্রায় এক কোটি টাকার এ কাজটি মাগুরার উত্তরা ইস্পুল সেন্টার ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান টেন্ডারের মাধ্যমে পায়। পরে তা উচ্চমূল্যে কিনে নিয়ে নির্মাণকাজ শুরু করে স্থানীয় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান সাব্বির এন্টারপ্রাইজ। নিম্নমানের ইট, বালু, খোয়া দিয়ে কাজটি করে আসছিলেন সাব-ঠিকাদার মাসুদুর রহমান। গত সোমবার বিকালে সবার অগোচরে এ নির্মাণকাজের লিনটেল ঢালাইয়ের কাজ শেষ করা হয়। ঢালাইয়ে রড ব্যবহার করা হয়নি জানতে পেরে স্কুলের শিক্ষার্থী ও স্থানীয়রা গত মঙ্গলবার বিকালে লিনটেল ভেঙে অভিযোগের সত্যতা পায়।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি বিপ্লব হোসেন জানান, নির্মাণকাজে ত্রুটি দেখার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। লিনটেল ঢালাইয়ের সময় ঝিনাইদহ শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের ইঞ্জিনিয়ার থাকার কথা থাকলেও তার অনুপস্থিতিতেই ঢালাই সম্পন্ন করা হয়েছে। ঢালাইয়ে কোনো কোনো জায়গায় একেবারেই রড ব্যবহার করা হয়নি, আবার কোথাও রডের স্থান ফেলে রেখে ঢালাই করা হয়েছে।

মো. ইসলাম নামে এক এলাকাবাসী জানান, বিদ্যালয়টির নির্মাণকাজে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছে। ঢালাই কাজে রড ব্যবহার করাই হয়নি। এ ব্যাপারে সাব-ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান সাব্বির এন্টারপ্রাইজের স্বত্বাধিকারী মাসুদুর রহমান বলেন, নির্মাণকাজে রড ব্যবহার করা হয়নি এটা সঠিক নয়, তবে কাজে কিছুটা ত্রুটি আছে।

ঝিনাইদহ শিক্ষা প্রকৌশল বিভাগের উপ-সহকারী প্রকৌশলী হুমায়ন কবির জানান, তার অনুপস্থিতিতেই এ ঢালাইয়ের কাজ সম্পন্ন করায় তাৎক্ষণিকভাবে নির্মাণকাজ বন্ধ করে সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads