• মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫
ads

অর্থনীতি

বিএসআরএম গ্রুপ

একই খাতের দুই কোম্পানির উৎপাদন ব্যয়ে বিপরীত চিত্র

  • প্রকাশিত ১২ মার্চ ২০১৮

ইস্পাত শিল্পে দেশের শীর্ষ গ্রুপ বিএসআরএম। দেশে রড ও বিলেটের মার্কেট শেয়ারের বড় অংশই এ গ্রুপটির দখলে। বিএসআরএম গ্রুপের কোম্পানি বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেড ও বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত রয়েছে। এর মধ্যে বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেড হচ্ছে দেশের সবচেয়ে বড় ইস্পাত শিল্প প্রতিষ্ঠান। একই গ্রুপের হলেও সম্প্রতি দুই কোম্পানির ব্যয়ের হিসাবে বিপরীত চিত্র লক্ষ্য করা গেছে। এক কোম্পানির ব্যয় উল্লেখযোগ্য হারে বাড়লেও অন্য কোম্পানির ক্ষেত্রে তা উল্টো কমতে দেখা গেছে। এতে নিট মুনাফায়ও পরিবর্তন দেখা গেছে।

সম্প্রতি বিএসআরএম স্টিলস ও বিএসআরএম স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেড চলতি হিসাব বছরের অনিরীক্ষিত অর্ধবার্ষিক প্রতিবেদন প্রকাশ করে। ওই প্রতিবেদনে উভয় কোম্পানির বিক্রি বাড়লেও অস্বাভাবিক হারে উৎপাদন ব্যয় বেড়ে গেছে বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেডের। এতে এ কোম্পানির নিট মুনাফাও আশঙ্কাজনক হারে কমে গেছে। যদিও অপর কোম্পানি বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের বিক্রি বাড়ার পাশাপাশি উৎপাদন ব্যয় কিছুটা কমে আসায় নিট মুনাফায় উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি এসেছে।

পর্যালোচনায় দেখা যায়, ২০১৬ সালের অর্ধবার্ষিকীতে বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেডের উৎপাদন ব্যয় ছিল প্রতিষ্ঠানটির মোট বিক্রির প্রায় ৮৩ শতাংশ, ২০১৭ সালে কোম্পানির উৎপাদন ব্যয় বেড়ে ৯০ দশমিক ৭ শতাংশে উন্নীত হয়। চলতি হিসাব বছরের অর্ধবার্ষিকীর অনিরীক্ষিত প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা যায়, এ সময় কোম্পানির বিক্রি আগের বছরের প্রথম প্রান্তিকের তুলনায় ৩৬ শতাংশ বাড়ে। কিন্তু উৎপাদন ব্যয় বৃদ্ধির কারণে কোম্পানির নিট মুনাফা আগের বছরের তুলনায় ৪৭ শতাংশ কমে গেছে।

চলতি অর্ধবার্ষিকীতে বিএসআরএম স্টিলস লিমিটেডের মোট বিক্রির পরিমাণ ছিল ১ হাজার ৮৬২ কোটি ৬৫ লাখ টাকা। আর উৎপাদন ব্যয় হয় ১ হাজার ৬৯০ কোটি টাকা। আগের বছরের একই সময়ে বিক্রি ১ হাজার ৩৬৯ কোটি টাকা ও উৎপাদন ব্যয় ছিল ১ হাজার ১৩৬ কোটি টাকা। আগের বছরের তুলনায় চলতি প্রথমার্ধে পণ্য বিক্রি ৩৬ শতাংশ বাড়লেও অস্বাভাবিক ব্যয় বৃদ্ধির কারণে চলতি অর্ধবার্ষিকীতে কোম্পানির নিট মুনাফা কমে দাঁড়ায় ৫৯ কোটি ২১ লাখ টাকায়, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ১১১ কোটি ৪০ লাখ টাকা।

এ বিষয়ে বিএসআরএম গ্রুপের চেয়ারম্যান আলী হোসেইন আকবের আলী বাংলাদেশের খবরকে বলেন, আন্তর্জাতিক পর্যায়ে আকরিকের দরবৃদ্ধিই মূল কারণ। এতে উৎপাদন ব্যয় বেড়ে গেছে। কাঁচামালের দরবৃদ্ধির কারণে ২০১৭ সালে ইস্পাত শিল্পে অস্থিরতা দেখা দেয়। যার প্রভাব অভ্যন্তরীণ বাজারে পড়েছে। শুরুতে প্রস্তুত পণ্যের দর বাড়াতে না পারলেও একটা সময়ে এসে আমাদেরকে পণ্যমূল্য বাড়াতে হয়েছে।

এদিকে চলতি অর্ধবার্ষিকীতে একই গ্রুপের অপর কোম্পানি বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের নিট মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ৩৮ শতাংশ বেড়েছে। মূলত পণ্য বিক্রয়ে প্রবৃদ্ধি ও তার বিপরীতে উৎপাদন খরচ কমে আসায় মুনাফায় ইতিবাচক প্রভাব পড়েছে।

অনিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন বিশ্লেষণে দেখা যায়, চলতি অর্ধবার্ষিকীতে বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের পণ্য বিক্রি থেকে আয় ছিল ১ হাজার ১০৪ কোটি টাকা, যা আগের বছরের একই সময়ের তুলনায় প্রায় ৩০ শতাংশ বেশি। বিক্রীত পণ্যের বিপরীতে উৎপাদন ব্যয় ছিল ৯৪১ কোটি টাকা। বিক্রির বিপরীতে কোম্পানির উৎপাদন ব্যয় দাঁড়ায় ৮৫ দশমিক ২৩ শতাংশ, যা আগের বছরের একই সময়ে ছিল ৮৬ শতাংশ। বিক্রয় প্রবৃদ্ধির পাশাপাশি উৎপাদন ব্যয় না বাড়ায় চলতি অর্ধবার্ষিকীতে কোম্পানির নিট মুনাফা আগের বছরের একই সময়ের চেয়ে ১৫ কোটি ১৭ লাখ টাকা বেড়েছে। এতে চলতি প্রথমার্ধে নিট মুনাফা দাঁড়ায় ৫৪ কোটি ৩৫ লাখ টাকা।

মুনাফায় বড় ধরনের প্রবৃদ্ধি সত্ত্বেও বাংলাদেশ স্টিল রি-রোলিং মিলস লিমিটেডের শেয়ারদরে উল্টো প্রভাব পড়েছে। গত ছয় মাসে এ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে ৩৫ শতাংশের বেশি। গতকাল এ কোম্পানির শেয়ারের সমাপনী মূল্য ছিল ৯২ টাকা ৭০ পয়সা, যা গত দুই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন। আর বিএসআরএম লিমিটেডের শেয়ারদর নেমে এসেছে ৭১ টাকা ৯০ পয়সায়। এটিও গত দুই বছরের মধ্যে সর্বনিম্ন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads