• বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads
প্রজাপতি কেন কচ্ছপের অশ্রু পান করে?

ক্লান্ত প্রজাপতির দল মাঝপুকুরের কচ্ছপের পিঠে বসে বিশ্রামের পাঁয়তারা করছে

ছবি : ইন্টারনেট

ফিচার

প্রজাপতি কেন কচ্ছপের অশ্রু পান করে?

  • ডেস্ক রিপোর্ট
  • প্রকাশিত ১৯ মে ২০১৮

বাড়ির পাশের জলাধারে, পুকুরে কিংবা বিলে এক টুকরো ভাসমান কাঠের গুঁড়িতে কচ্ছপের রোদ পোহানোর দৃশ্য হরহামেশায়ই চোখে পড়ে। কখনো কখনো দেখা যায় আয়েশ করতে থাকা সেই সব কচ্ছপকে ঘিরে ওড়াউড়ি করছে একঝাঁক রঙিন প্রজাপতি। বিষয়টিকে অনেকের মনে হতে পারে উড়তে উড়তে ক্লান্ত প্রজাপতির দল মাঝপুকুরের কচ্ছপের পিঠে বসে বিশ্রামের পাঁয়তারা করছে! কিন্তু একটু খেয়াল করলেই দেখা যায়, প্রজাপতিগুলো ঠিক কচ্ছপের পিঠে বসার পাঁয়তারা করছেন না, তারা কচ্ছপটির ঠিক চোখের ওপর বসছে। কিন্তু কেন এমন করে প্রজাপতিরা?

প্রাণিবিজ্ঞানীরা বলছেন, কচ্ছপ বা কুমিরের মতো জলজ প্রাণীদের চোখ থেকে সরাসরি অশ্রু পান করতেই এমন করে প্রজাপতিরা। এর মাধ্যমে প্রজাপতিকুল তাদের শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় লবণ সংগ্রহ করে থাকে।

আরো স্পষ্ট করে বলতে গেলে, প্রজাপতিরা তাদের শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় সোডিয়াম জোগাড় করতেই এইসব জলজ প্রাণীর অশ্রু পান করে।

প্রাণিবিজ্ঞানী ফিল তোরেস বলেন, কচ্ছপ বা কুমির যখন প্রাকৃতিক পরিবেশ থেকে খাবার গ্রহণ করে তখন সেই খাবারের মধ্যে থাকে প্রচুর পরিমাণ সোডিয়ামজাত লবণ। আর এ কারণেই অন্যান্য প্রাণীর চোখের পানির তুলনায় কচ্ছপ বা কুমিরের চোখের পানিতে বেশি পরিমাণে সোডিয়ামজাত লবণ থাকে। আর প্রজাপতির মতো পতঙ্গগুলো যেহেতু সরাসরি খনিজ গ্রহণ করতে পারে না তাই তারা এজন্য কচ্ছপ বা কুমিরের ওপর নির্ভর করে।

তবে লাইভ সায়েন্স জার্নালের মতে, কেবল কচ্ছপের চোখই প্রজাপতিদের প্রয়োজনীয় সোডিয়ামের একমাত্র উৎস নয়। বিভিন্ন প্রাণীর মূত্র, কর্দমাক্ত নদীতট, ঘামে ভেজা কাপড় থেকেও নিজেদের প্রয়োজনীয় সোডিয়াম সংগ্রহ করে প্রজাপতিরা।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads