• শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
কমলারানীর সাগরদীঘি

কমলারানীর সাগরদীঘি

সংরক্ষিত ছবি

ফিচার

কমলারানীর সাগরদীঘি

  • হবিগঞ্জ প্রতিনিধি
  • প্রকাশিত ০৩ জুলাই ২০১৮

পর্যটনের অপার সম্ভাবনাময় হবিগঞ্জের রহস্যঘেরা সাগরদীঘি। স্থানীয়ভাবে যার পরিচিতি কমলারানীর দিঘি নামে। রাজা পদ্মনাভ ৬৬ একর জমির ওপর খনন করেন এ দিঘি। পরে রাজা স্বপ্নে দেখেন রানী কমলাবতী দিঘিতে না নামলে সেখানে পানি উঠবে না। পরদিনই দিঘিতে নামেন কমলাবতী। তিনি যতই নামছিলেন, পানি ততই বাড়ছিল। একপর্যায়ে দিঘি পূর্ণ হয় পানিতে। আর সেই সঙ্গে পানিতে তলিয়ে হারিয়ে যান রানী কমলাবতী। অথচ কয়েকশ’ বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী এ দিঘিটি এখন নানান কৌশলে ভোগদখল করছেন স্থানীয়রা। মামলা-মোকদ্দমার বেড়াজালে আটকে রেখে স্থানীয়রা বছরের পর বছর ধরে শুধু ভোগদখলই করছে না, তুলছে মাটিও। ময়লা আবর্জনা ফেলেও নষ্ট করছে এর পরিবেশ। কিন্তু দিঘিকে ঘিরে পর্যটন কেন্দ্র গড়ে তুলতে বিভিন্ন সরকারের সময় ঘোষণা দেওয়া হলেও বাস্তবে কাজের কাজ কিছুই হয়নি। এই দিঘি বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম দিঘি হিসেবে স্বীকৃত। প্রাকৃতিক সৌন্দর্যে ভরপুর এ দিঘি সবার জন্য এক দর্শনীয় স্থান। দিঘির নয়নাভিরাম দৃশ্য দেখার জন্য প্রতিদিন বিভিন্ন স্থান থেকে দর্শনার্থীরা আসেন। জনশ্রুতি রয়েছে, পদ্মনাভ নামের এক রাজা এ অঞ্চলে রাজত্ব করতেন। তার রূপবতী স্ত্রীর নাম ছিল কমলাবতী। তিনি ছিলেন দক্ষিণ হবিগঞ্জ বা তরফ অঞ্চলের রাজকন্যা। সাত ভাই এক বোনের মধ্যে কমলাবতী ছিলেন সর্বকনিষ্ঠ। হঠাৎ রাজ্যে দেখা দেয় তীব্র পানি সঙ্কট। জনদরদী রাজা প্রজাদের পানির কষ্ট নিবারণের জন্য তখন দিঘি খননের নির্দেশ দেন। খননের দায়িত্ব দেওয়া হয় গন্ডমালি নামের এক লোককে। তার তত্ত্বাবধানে ৬৬ একর জমির ওপর খুব দ্রুত শেষ হয় দিঘি খননের কাজ। কিন্তু খননের পর দিঘিতে পানি উঠছিল না। একদিন রাজা স্বপ্নে দেখেন রানী কমলাকে যদি দিঘিতে বিসর্জন দেন, তাহলেই সেখানে পানি উঠবে। স্বপ্নের কথাটি রানী কমলাবতীর কানে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে তিনি প্রজাদের স্বার্থে দিঘিতে আত্মদানের সিদ্ধান্ত নেন। যথারীতি বিষাদ পূজা শেষ করে অশ্রুসিক্ত নয়নে তিনি দিঘিতে নামার সঙ্গে সঙ্গে তাতে পানি উঠতে শুরু করে। একসময় পানিতে কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে পুরো দিঘি। সেই সঙ্গে দিঘির অতল গহ্বরে তলিয়ে যান রানী কমলাবতী। কমলাবতীর আত্মদানের কারণে এর নামকরণ হয় কমলারানীর দিঘি। কিন্তু সাগরের মতো বিশালতার কারণে পরে নাম হয়ে যায় সাগরদীঘি। রহস্যময় ঐতিহ্যবাহী এ দিঘি দেখতে প্রতিদিন এখানে বিভিন্ন স্থান থেকে দর্শনার্থীরা আসেন।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads