• শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ২১ কার্তিক ১৪২৪
ads
নিজে যখন নিজের বস

ইচ্ছে আর কাজের প্রতি ভালোবাসা থাকলে নিজেই হতে পারবেন নিজের বস

ছবি : ইন্টারনেট

ফিচার

নিজে যখন নিজের বস

  • ইশতিয়াক আবীর
  • প্রকাশিত ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮

শিরোনাম পড়েই অনেকের কপালে ভাঁজ পড়েছে নিশ্চয়ই। এটাও কি সম্ভব? হ্যাঁ সম্ভব। প্রযুক্তির এই দুনিয়ায় সবকিছুই সম্ভব। চাকরির পেছনে ছুটতে ছুটতে ক্লান্ত হতে হবে না আর। আপনাকে ১০টা ৫টার অফিসে বিরক্ত হতে হবে না। শুধু নিজের ইচ্ছে আর কাজের প্রতি ভালোবাসা থাকলে নিজেই হতে পারবেন নিজের  বস। তবে এ জন্য থাকা চাই কিছু যোগ্যতা। নির্দিষ্ট কোনো কাজ সম্পর্কে থাকতে হবে অভিজ্ঞতা। সেটা হতে পারে ফটোগ্রাফি থেকে শুরু করে ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, অ্যানিমেশন মেকিং, ওয়েব ডেভেলপার, কন্টেন্ট রাইটিংসহ অনেক কিছু।

এই জন্য আপনাকে অবশ্যই কোনো নির্দিষ্ট বিষয়ে পারদার্শী হতে হবে। চলুন জেনে নিই এ রকমের কয়েকটি পেশা সম্পর্কে।

ফটোগ্রাফি : বর্তমান সময়ে ছবি ছাড়া চিন্তাই করা যায় না। ফেসবুক থেকে শুরু বিয়ে কিংবা জন্মদিন সব উৎসবে প্রতিটি মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দি করে রাখতে কে না চায়! আর এর জন্য প্রয়োজন একজন ফটোগ্রাফারের। আপনার যদি ছবি তুলতে ভালো লাগে, তবে মুক্ত পেশা হিসেবে বেছে নিতে পারেন ফটোগ্রাফিকে। চাইলে এর জন্য ফটোগ্রাফি শেখার কোনো প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েও শুরু করতে পারেন। অথবা ইউটিউবে বিখ্যাত ফটোগ্রাফারদের ভিডিও টিউটোরিয়াল দেখেও পথচলা শুরু করতে পারেন।

একেকটি অনুষ্ঠানের রকম ভেদে পাঁচ হাজার থেকে লাখ টাকা পর্যন্ত আয়ের সুযোগ রয়েছে।

ভিডিও মেকিং : ভিডিও এডিটিং এবং এ সম্পর্কে জ্ঞান আছে? ক্রিয়েটিভ কিছু করতে চান? তাইলে এটা আপনার জন্য। বিয়েবাড়ি, গায়েহলুদসহ বিভিন্ন অনুষ্ঠানের ভিডিও ধারণ করে সবাই রাখতে চায়। পোস্ট প্রোডাকশন থেকে শুরু করে ভিডিও মেকিং, এডিটিং সবকিছুর জন্যই দক্ষ লোকের প্রয়োজন হয়। এটা হতে পারে আপনার জন্য নিজের স্কিল বাড়ানোর একটা বাড়তি সুযোগ। এ খাতেও ভালো আয়ের সুযোগ রয়েছে।

ওয়েব ডিজাইন : ডিজিটাল সময়ে প্রতিষ্ঠান কিংবা ব্যক্তি সবারই একটা ওয়েবসাইট থাকা চাই। এই কাজের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে শুধু এই খাতেই আলাদা জনবল নিয়োগ করা হয়। আপনার যদি ওয়েব ডিজাইনে আগ্রহ থাকে, তবে খুব সহজেই কয়েক মাসে এটা শিখে নিতে পারবেন। ওয়েব ডিজাইনের কাজ পেতে খুব বেশি পরিশ্রম করতেও হবে না আপনাকে। পরিচিত লোকজনের মাধ্যমেই এই কাজ পেতে পারেন। ওয়েব ডিজাইনে আয়ের নির্দিষ্ট করা বলা মুশকিল। বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইটে প্রচুর ওয়েব ডিজাইনের কাজ পাওয়া যায়। একটু হাত পাকিয়ে সেসব সাইটে কাজ করতে পারেন। আপনি যত দক্ষ হবেন আপনার আয় তত বাড়বে।

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট : এত এত ওয়েবসাইট মেইনটেন করার জন্য ডেভেলপার দরকার হয়। নিয়মিত ওয়েব পোর্টাল আপডেট ও মেইন্টেন করার জন্য লোকের দরকার হয়। ঘরে বসেই ইন্টারনেটে এই কাজ করে রোজগার করা সম্ভব। অনেক সময় বিভিন্ন ওয়েবসাইট সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের হয়েও কাজ করার সুযোগ রয়েছে। এ ছাড়াও বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইটেও কাজ করা যায়। এতে আয়ও বেশ ভালো। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে, এতে কোনো নির্দিষ্ট টাইম ধরে কাজ করতে হয় না।

গ্রাফিক্স ডিজাইন : আধুনিক সময়ে সব কিছুতেই লেগেছে নান্দনিকতার হাওয়া। ক্যালেন্ডার থেকে শুরু করে লিফলেট, ম্যাগাজিন, পণ্যের প্রচারের জন্যও দরকার পড়ে গ্রাফিক্স ডিজাইনের। এসব ডিজাইন করার জন্য দরকার হয় গ্রাফিক্স ডিজাইনারের। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং বাজারের সবচেয়ে বেশি চাহিদা গ্রাফিক্স ডিজাইনের। সবাই চায় তাদের নিজের প্রতিষ্ঠানের লোগো, পণ্যের ডিজাইন, মার্কেটিংয়ের বিভিন্ন জিনিসপত্রে শিল্পের ছোঁয়া রাখতে। এই কাজে দক্ষ হয়ে আপনিও ক্যারিয়ার গড়তে পারেন এই খাতে। এর জন্য সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে, ঘরে বসেই এই কাজ করা যায়। বিভিন্ন ফ্রিল্যান্সিং সাইটে প্রচুর কাজ পাওয়া যায়। এক্ষেত্রে  ১০টা ৫টা নিয়ম না থাকলেও ক্লায়েন্টের নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে হয়। এতে বেশ ভালো অর্থ উপার্জনের সুযোগ রয়েছে। অনলাইন মার্কেটপ্লেসে আপনি একটি লোগো ডিজাইন করলে ৫ থেকে শুরু করে ২ হাজার ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন। তবে দক্ষতার ক্ষেত্রে এবং বেশি ক্রিয়েটিভ কাজ হলে এটি ৫ হাজার ডলার পর্যন্তও হতে পারে। এ ছাড়া একটি ওয়েবসাইটের ল্যান্ডিং পেজ ডিজাইন করার ক্ষেত্রে ৫০ ডলার থেকে শুরু করে ৩ হাজার ডলার পর্যন্ত পেতে পারেন। মূলত কাজের মান ও ক্রিয়েটিভির ওপর ভিত্তি করেই আপনার আয় নির্ভর করবে।

অ্যানিমেশন মেইকিং : নাটক, মুভি, গেম থেকে শুরু করে বিজ্ঞাপন সব কিছুতে অ্যানিমেশনের ব্যবহার বাড়ছে। প্রতিনিয়ত এর চাহিদা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই পেশায় বেশ ভালো আয়ের সুযোগ রয়েছে। এ পেশায় ঘরে বসেই কাজ করা যায়। তবে এর জন্য দরকার হাই কনফিগারেশনের কম্পিউটার ও সংশ্লিষ্ট কাজে নিজের দক্ষতা।

এতে সেকেন্ড হিসেবে পেমেন্ট দেওয়া হয়। একবার এই কাজে দক্ষ হয়ে উঠলে বেশ ভালো ক্যারিয়ারের সম্ভাবনা রয়েছে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads