• সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪
ads

জীবন ধারা

অতিপ্রয়োজনীয় ভিটামিন বি-১২

  • প্রকাশিত ২১ জানুয়ারি ২০১৮

 

টানা ৮ ঘণ্টা ঘুমানোর পরও যখন সকালে ক্লান্তিবোধ হয় আর মনে হয় চোখ লেগে আসছে, তখন একটু খেয়াল করুন ভিটামিন বি১২ যুক্ত খাবারের ঘাটতি রয়েছে কিনা আপনার। কারণ ক্লান্তি ভিটামিন বি১২-এর অস্পূর্ণতার প্রথম লক্ষণ। আমাদের শরীর এই ভিটামিনের ওপর নির্ভর করে, যা লোহিত রক্ত কণিকা তৈরি করে। লোহিত রক্ত কণিকা অঙ্গপ্রত্যঙ্গে অক্সিজেন পৌঁছে দেয়। আর কোষে অক্সিজেনের অভাব হলে আপনি যত সময় ধরেই ঘুমান না কেন, ক্লান্তি কাটবে না। ভিটামিন বি১২-এর অভাবে আরো যেসব সমস্যা দেখা দিতে পারে তা হলো—

 

হঠাত্ করেই স্কুলের সেই বন্ধুটির নাম মনে করতে পারছেন না। কিছুতেই মনে পড়ছে না একই বেঞ্চে বসে ক্লাস করা প্রিয় বন্ধুর নামখানা। মাঝে মধ্যেই মনে হয় ডিমেনসিয়ার প্রাথমিক লক্ষণ এগুলো, কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে ভিটামিন বি১২-এর অভাবে ঘটতে পারে এসব ঘটনা। বয়স্কদের ক্ষেত্রে ভুলে যাওয়ার বিষয়টিকে অ্যালঝেইমার্সের পূর্ব লক্ষণ বলে ধরে নেয়া হয়, সেক্ষেত্রে রক্ত পরীক্ষার মাধ্যমে ভিটামিন বি১২-এর ঘাটতি রয়েছে কিনা, দেখা জরুরি। এরপর বিশেষজ্ঞের পরামর্শ অনুযায়ী সম্পূরক গ্রহণ করা উচিত।

 

অনেক সময় এক সিঁড়ি ওপরে ওঠার পরই মাথা ঘুরতে থাকে। তুরস্কের একটি গবেষণায় ১০০ জনের ওপর করা পরীক্ষায় দেখা গেছে, যাদের মাথা ঘোরানোর সমস্যা রয়েছে, তাদের শরীরে ভিটামিন বি১২ রয়েছে শতকরা ৪০ শতাংশ।

 

এ ভিটামিনের ঘাটতির কারণে বাড়তে পারে বিষণ্নতা ও অ্যাংজাইটিও। যদিও ডাক্তাররা এখন নিশ্চিত জানেন না, কেন এই ভিটামিনের অভাবে বিষণ্নতায় ভোগে মানুষ। কিন্তু সম্ভাব্য কারণ হতে পারে ভিটামিন বি১২ মেজাজের সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত ব্রেইন কেমিক্যাল সেরোটোনিন ও ডোপামাইনের সঙ্গে সমন্বয় সাধন করে।

 

অনেকেরই জানা নেই, ভিটামিন বি১২-এর অভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে রেটিনা। প্রয়োজনীয় ভিটামিন বি-১২ গ্রহণ না করলে ক্ষীণ দৃষ্টি ও আলোর সংবেদনশীলতা ইত্যাদি সমস্যাও দেখা দিতে পারে।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads