• বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮, ৩০ কার্তিক ১৪২৫
ads

খেলা

যুব গেমস শুরুর অপেক্ষা

  • ক্রীড়া প্রতিবেদক
  • প্রকাশিত ০৮ মার্চ ২০১৮

গত বছর ১৮ ডিসেম্বরে পর্দা উঠেছিল যুব গেমসের। সারা দেশে একযোগে অনূর্ধ্ব-১৭ বয়সী ক্রীড়াবিদদের অংশগ্রহণে শুরু হয়েছিল এ আসর। প্রাথমিক পর্যায়ে দেশের ৪৬০টি উপজেলা থেকে প্রায় অর্ধলাখ ক্রীড়াবিদ ২১টি ডিসিপ্লিনে অংশ নেয়। সেখান থেকে সেরা খেলোয়াড়দের বাছাই শেষে গঠন করা হয় জেলা দল। চলতি বছরের ৮ জানুয়ারি শুরু হয় বিভাগীয় পর্যায়ের খেলা। বিভাগীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতা শেষ হয় ১৩ জানুয়ারি। উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায় শেষে এখন অপেক্ষা ফাইনাল রাউন্ডের। যদিও ফুটবলের লড়াই শুরু হয়ে গেছে ৭ মার্চ। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে শনিবার থেকে মাঠে গড়াচ্ছে মূলপর্বের কঠিন লড়াই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে উপস্থিত থেকে সন্ধ্যায় উদ্বোধন ঘোষণা করবেন প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ ক্রীড়া আসরের। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে বর্ণিল আয়োজনের মধ্য দিয়ে পর্দা উঠবে ক্ষুদে তারকাদের খুঁজে বের করার ফাইনাল রাউন্ড। যুব গেমসের ফাইনাল রাউন্ড উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান গেমসের মিডিয়া ও পাবলিসিটি উপ-কমিটির চেয়ারম্যান শেখ বশির।

ফাইনাল রাউন্ডের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানকে জাঁকজমক করতে আয়োজনের কোনো ঘাটতি রাখছে না বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন (বিওএ)। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে লেজার শো, আতশবাজি ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। যে অনুষ্ঠানে গান ও নৃত্য পরিবেশন করবেন দেশের খ্যাতিমান তারকা শিল্পীরা। আর গেমসের মশাল প্রজ্বলন করবে কমনওয়েলথ ও সাফ গেমসে শুটিংয়ে স্বর্ণজয়ী শুটার আসিফ হোসেন।

প্রাথমিক পর্যায়ে ৪৮ হাজার ৪২৮ জন ক্রীড়াবিদ অংশ নিয়েছিলেন। উপজেলা পর্যায়ের এ বাছাই শেষে জেলা পর্যায়ের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছিল ৬ হাজার ৭০৮ জনকে। বাছাইকৃত খেলোয়াড়দের নিয়ে জেলা দল গঠন করে বিভাগীয় পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় নামানো হয়েছিল। বিভাগীয় পর্যায়ের বাছাইয়ে ফাইনাল রাউন্ডে অংশ নেওয়ার জন্য ছাড়পত্র পায় মাত্র দুই হাজার ৬৬০ জন ক্ষুদে খেলোয়াড়। যেখানে ২১টি ডিসিপ্লিনের ১৫৯টি ইভেন্টে ৩৪০টি স্বর্ণ, সমানসংখ্যক রৌপ্য ও ৪৩০টি ব্রোঞ্জ পদকের জন্য লড়াই করবেন তৃণমূল থেকে বাছাই করা ক্রীড়াবিদরা। মূলপর্বে উত্তীর্ণ হওয়া ক্রীড়াবিদদের ঢাকায় আবাসন, খাওয়া খরচ ছাড়াও আসা-যাওয়ার ভাতা প্রদান করবে আয়োজক বিওএ।

প্রথমবারের মতো আয়োজিত এ আসরের ইভেন্টগুলো হচ্ছে ফুটবল, কাবাডি, বাস্কেটবল, ভলিবল, হ্যান্ডবল, হকি, অ্যাথলেটিকস, সাঁতার, টেবিল টেনিস, ভারোত্তোলন, রেসলিং, উশু, শুটিং, আরচারি, ব্যাডমিন্টন, বক্সিং, দাবা, জুডো, কারাতে, তায়কোয়ানদো ও স্কোয়াশ।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads