• রবিবার, ৫ জুলাই ২০২০, ২১ আষাঢ় ১৪২৭
ads
মেসিকে সমালোচনায় কান দিতে বারণ মায়ের

আর্জেন্টাইন তারকা ফুটবলার লিওনেল মেসি

ছবি : ইন্টারনেট

ফুটবল

মেসিকে সমালোচনায় কান দিতে বারণ মায়ের

  • স্পোর্টস ডেস্ক
  • প্রকাশিত ২১ জুন ২০১৮

মেসি এই মুহূর্তে আর্জেন্টিনার সেরা তারকা হলেও তার দেশের অনেকেই বিশ্বাস করেন, তিনি দিয়েগো ম্যারাডোনার মতো নন। আর্জেন্টিনা ফুটবলে ম্যারাডোনার যা অবদান, মেসি তার কিছুই এখনো পর্যন্ত দিতে পারেননি। তাই অনেকে আঙুল তুলছেন এই বলে যে, মেসি বার্সেলোনাকে বেশি ভালবাসেন, দেশকে না! আর এই সমালোচনায় কান দিতে মেসিকে বারণ করছেন তার মা সেলিয়া। তিনি আর্জেন্টিনার রোসারিয়োতে বসে চোখের জল ফেলতে ফেলতে বলেছেন, ‘যারা বলছেন, আমার লিও দেশের চেয়ে ক্লাবকে বেশি ভালবাসে, তারা ভুল করছেন। দেশের ব্যর্থতায় ওকে যেভাবে হতাশ হয়ে ভেঙে পড়তে দেখেছি, তা যদি মানুষ দেখতো, তাহলে এ কথা বলতে পারতো না। তাই কাউকে এমন কথা বলতে শুনলে খুব খারাপ লাগে।’

আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়া যে মেসির সবচেয়ে বড় স্বপ্ন, তাও জানিয়ে দিয়ে গর্বিত মা বলেন, ‘বিশ্বকাপ জয়ের ব্যাপারে ও খুবই আশাবাদী। ওকে আমি বার বার বলেছি, তোমার যা ভাললাগে, তাই করবে। মাঠে নেমে খেলাটা উপভোগ করবে, যেমন ছোটবেলায় করতে। পরিবারের সবাই যে ওর পাশে আছে, তাও জানিয়ে দিয়েছি। মেসির সঙ্গে কথা বলে মনে হয়েছে, একেবারেই চাপে নেই।’

ফুটবলবোদ্ধাদের অবশ্য মনে হচ্ছে, মেসি খুব চাপে রয়েছেন। ম্যারাডোনা অবশ্য আর্জেন্টিনা অধিনায়কের পাশেই দাঁড়িয়েছেন। প্রথম ম্যাচে আইসল্যান্ডের বিরুদ্ধে ড্রয়ের পরেই বলেছিলেন, ‘প্রথম ম্যাচে মেসি যতটুকু পেরেছে দিয়েছে। ওর কোনো দোষ দেখছি না।’ তিনি বরং কোচ সাম্পাওলিকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন। ম্যারাডোনা বলেছেন, ‘এই পারফরম্যান্স থাকলে সাম্পাওলিকে আর আর্জেন্টিনায় ফিরতে হবে বলে মনে হয় না!’ আর এক প্রাক্তন তারকা ও ম্যারাডোনার সতীর্থ ক্লদিয়ো ক্যানিজিয়াও মেসির পক্ষে। তিনি বলেছেন, ‘মেসি সতীর্থদের কাছ থেকে সেই সাহায্য পায় না, যা ম্যারাডোনা পেত। সব দায় তো আর মেসির ওপর চাপিয়ে দেওয়া উচিত না। তা হলে অন্যরা মাঠে নামে কী করছে?’ আর হার্নান ক্রেসপো বলেছেন, ‘বিশ্বকাপ না জিততে পারলেও মেসির ঔজ্জ্বল্য এতটুকু কমবে না। এরকম অনেক ফুটবলারই আছে, যারা বিশ্বকাপ না জিতেও কিংবদন্তি হয়ে রয়েছে। ইয়োহান ক্রুয়েফ বা মিশেল প্লাতিনিকেই দেখুন। মেসিও সে রকমই। ও দুর্দান্ত ফুটবলার। বিশ্বকাপ ওর প্রাপ্য। কিন্তু না পেলেও কিছু আসে যায় না। ও গ্রেট-ই থাকবে।’

মেসি অবশ্য আর্জেন্টিনার প্রথম ম্যাচে জিততে না পারার সব দায়িত্ব নিজের কাঁধেই নিয়েছেন। প্রাক্তনদের মতো মেসির সমর্থনে মুখ খুলেছেন তার আর্জেন্টাইন সতীর্থেরাও। যেমন স্ট্রাইকার পাওলো দিবালা। যার মতে, ‘আমরা সবাই ওর পাশে আছি। আমরা ওকে প্রতি মুহূর্তে সাহায্য করছি।’ ডিফেন্ডার ক্রিশ্চিয়ান আনসালদি জানাচ্ছেন, মেসি মোটেই চাপে নেই। তিনি বলেন, ‘আর্জেন্টিনার ফুটবলে মেসি কী, তা সবাই জানে। মাঠের বাইরেও ও সেরা। ও একেবারে স্বাভাবিক আছে, মোটেই চাপে নেই। আর এটা আমাদের পক্ষেও ভাল।’

এত শুভেচ্ছা, ভালবাসা নিয়ে আজ ঘুরে দাঁড়াতে পারবেন কি না মেসি, তা জানার জন্য অধীর আগ্রহে অপেক্ষায় পুরো বিশ্ব।

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads