• সোমবার, ১৩ জুলাই ২০২০, ২৯ আষাঢ় ১৪২৭
ads
‘তিতলি’র প্রভাবে সব ম্যাচ ড্র

ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’র প্রভাবে মাঠ ভিজে একাকার। জাতীয় ক্রিকেট লিগে গতকাল সব ভেন্যুতে ছিল একই দৃশ্য

ছবি -বাংলাদেশের খবর

খেলা

‘তিতলি’র প্রভাবে সব ম্যাচ ড্র

  • স্পোর্টস রিপোর্টার
  • প্রকাশিত ১২ অক্টোবর ২০১৮

ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ আঘাত হেনেছে ভারতে। এর প্রভাব পড়েছে কমবেশি বাংলাদেশের সব জেলাতেই। বাদ যায়নি জাতীয় ক্রিকেট লিগও (এনসিএল)। বেশ কিছুদিন গরম আবহাওয়া থাকলেও ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে কয়েক দিন থেকেই গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। বড় আঘাতের আশঙ্কায় গতকাল বৃহস্পতিবার চলতি এনসিএলের দ্বিতীয় রাউন্ডের শেষ দিন সব ম্যাচ ড্রর ঘোষণা দেওয়া হয়।

কক্সবাজারে অনুষ্ঠিত সিলেট-চট্টগ্রাম ম্যাচটি টানা বৃষ্টির কারণে প্রথম দিনের পর আর মাঠে গড়ায়নি। তবে বাকি তিন ম্যাচে ফলাফলের সম্ভাবনা ছিল। কিন্তু তিতলির প্রভাবে হওয়া গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতে তা আর সম্ভব হয়নি।

খুলনায় বরিশাল-খুলনা ম্যাচের প্রথম ইনিংসে বরিশালের ২৯৯ রানের জবাবে ভালোই এগোচ্ছিল স্বাগতিকরা। জিয়াউর রহমানের সেঞ্চুরি ও আফিফ হোসেন ধ্রুবর অপরাজিত ৮১ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ৩৪৯ রান করে খুলনা। কিন্তু বৃষ্টির কারণে ম্যাচ মাঠে না গড়ানোর কারণে আফিফের সেঞ্চুরি করা হয়নি।ফতুল্লায় ইনিংস পরাজয়ের মুখে ছিল ঢাকা বিভাগ। প্রথম ইনিংসে ২০৬ রানে অলআউট হয় ঢাকা বিভাগ। সাদমান ইসলাম অনিকের ক্যারিয়ার সেরা ১৮৯ রানে ভর করে ঢাকা মেট্রোর ইনিংস থামে ৩৮৭ রানে। দ্বিতীয় ইনিংসে ৫০ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে বসে ঢাকা। কিন্তু শেষ দিন খেলা না হওয়ায় ড্রতে বেঁচে যায় ঢাকা বিভাগ।

অপরদিকে রাজশাহীর শহীদ কামারুজ্জামান স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় রংপুর ও রাজশাহী। এই ম্যাচে তিন সেঞ্চুরি ও একটি রেকর্ডগড়া ডবল সেঞ্চুরিতে রানের বন্যা হচ্ছিল। কিন্তু শেষ দিন ম্যাচ না হওয়ায় ড্রর ঘোষণা দেওয়া হয়। নাজমুল হোসেন শান্ত ১৭৩, মিজানুর রহমান ১৬৫ ও জিয়াউর রহমান ১০০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। এছাড়া লিটন কুমার দাস মাত্র ১৪০ বলে ডবল সেঞ্চুরি হাঁকান। ২০৩ রানে আউট হন তিনি।

 

আরও পড়ুন



বাংলাদেশের খবর
  • ads
  • ads